Home Uncategorized দিল্লির দূষণে খেলা কঠিন, স্বীকার করছেন ভারতীয় কোচ

দিল্লির দূষণে খেলা কঠিন, স্বীকার করছেন ভারতীয় কোচ

by Sha id

দিল্লির দূষণে খেলা কঠিন, স্বীকার করছেন ভারতীয় কোচ

 

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার প্রথম ম্যাচের আগে আলোচনায় দিল্লির বায়ু দূষণ। এই বায়ু দূষণের মধ্যে খেলা কঠিন বলে স্বীকার করেছেন স্বাগতিক ভারতীয় দলের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর।

দিল্লির প্রকট বায়ুদূষণের মধ্যেই ৩ নভেম্বর প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) দিল্লির বাতাসকে ‘খুব খারাপ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে। এ নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও বায়ুদূষণের মধ্যেই ম্যাচটি আয়োজনের প্রস্তুতি শেষ করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। গতকাল তো অনুশীলনে বায়ুদূষণ থেকে নিজেদের বাঁচানোর জন্য মাস্ক পরেই অনুশীলন করেছেন বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেটার। দিল্লির এই বায়ু দূষণের মধ্যে খেলা কঠিন বলে স্বীকার করেছেন স্বাগতিক ভারতীয় দলের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর।

দীপাবলির সকাল থেকেই দিল্লিতে বায়ুদূষণের মাত্রা বেড়েছে :

বাতাস ব্যবস্থাপনা ও আবহাওয়া গবেষণা (এসএএফএআর) প্রতিষ্ঠানের মতে দিল্লির বাতাসের অবস্থা ‘খুবই বাজে।’ একিউআইয়ের মানদণ্ড অনুযায়ী, দিল্লির বাতাসে দূষণের মাত্রা ৩০১-৪০০, যা শ্বাসকষ্ট ও অন্যান্য শারীরিক অসুস্থতার কারণ হতে পারে। এরই মধ্যে গতকাল বাংলাদেশ দল অনুশীলন করেছে নতুন নামকৃত অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে। আজ সেখানে অনুশীলন করেছে ভারতও। আর অনুশীলন করতে এসেই গণমাধ্যমকে ভারতের ব্যাটিং কোচ স্বীকার করেছেন দিল্লিতে এ অবস্থায় খেলা কঠিন

সাবেক ক্রিকেটার বিক্রম ক্যারিয়ারের প্রায় পুরোটা সময় কাটিয়েছেন উত্তর ভারতে। সুতরাং দিল্লির বায়ু দূষণ সম্পর্কে ভালোই জানা আছে ভারতের বর্তমান ব্যাটিং কোচের। দিল্লিতে এই সময়ে স্বাস্থ্য ঝুঁকি নিয়েই খেলতে হবে বলে স্বীকার করেছেন ৫০ বছর বয়সী বিক্রম, ‘আমি আমার পুরো জীবন উত্তর ভারতে খেলেছি। এখানে খেলার নির্ধারিত সূচি থাকলে খেলতেই হবে। হ্যাঁ, এখানে স্বাস্থ্য ঝুঁকি আছে। কিন্তু আমাদের খেলতে হবে। একবার খেলার মধ্যে ঢুকে গেলে সেগুলো আর খেয়াল থাকে না। আমি বুঝি এখানে স্বাস্থ্য ঝুঁকি আছে। কিন্তু এখানে তো খেলার জন্যই আসা।’

দুই বছর আগে দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় (বর্তমান অরুণ জেটলি) ভারত-শ্রীলঙ্কা টেস্টে খেলা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই লঙ্কান খেলোয়াড়েরা মুখ ঢাকেন ‘মাস্কে’। দিল্লির বায়ুদূষণ নাকি সেদিন অসহনীয় হয়ে উঠেছিল শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের কাছে। এমনকি পেসার সুরঙ্গা লাকমল মাঠেই বমি করে ফেলেছিলেন। পুরো ব্যাপারটি অসম্ভব বিব্রতকর অবস্থায় ঠেলে দিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিসিআই)।

You may also like

Leave a Comment